1. admin@71bangla24.com : admin :
বুধবার, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:০৭ অপরাহ্ন
বিজ্ঞাপন:
সারাদেশে জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নেওয়া হবে।আগ্রহীরা যোগাযোগ করবেন ০১৭৭৮৬২০৬৯০ অথবা ০১৭১২৯৫৪৮৮৩ আপনার প্রতিষ্ঠানকে সারা বিশ্বে পরিচিত করতে বিজ্ঞাপন দিন।বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন-০১৭৭৮৬২০৬৯০
শিরোনামঃ
দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ থাকার পর রিটেন্ডার হচ্ছে সাতৈর রেলগেটে নির্মাণাধীন ওভারপাসের দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ থাকার পর রিটেন্ডার হচ্ছে সাতৈর রেলগেটে নির্মাণাধীন ওভারপাসের বোয়ালমারীতে মৎস্য সপ্তাহ পালন উপলক্ষে মাইকিং ফলোআপ-বোয়ালমারীতে দুই শিশু ধর্ষণ চেষ্টায় মামলা বোয়ালমারীতে দুই শিশু ধর্ষণ চেষ্টার দায়ে থানায় লিখিত অভিযোগ বোয়ালমারীতে ইয়াবা বড়ি ও সাজাপ্রাপ্ত আসামীসহ তিন জন গ্রেফতার বোয়ালমারীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বোয়ালমারীতে মাদরাসা ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ বোয়ালমারীতে শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও খাবার বিতরণ শোক দিবসে বোয়ালমারীতে আব্দুর রহমানের পক্ষে ছাত্রলীগের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বোয়ালমারীতে ১৫ ই আগস্টে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ বোয়ালমারীতে চার দোকান আগুনে পুড়ে ছাই বোয়ালমারীতে দুই মাদক কারবারি র‌্যাবের হাতে আটক মধুখালী হাসপাতালে অক্সিজেন সিলিন্ডার ও করোনা সুরক্ষা সামগ্রী দিলেন আব্দুর রহমান বোয়ালমারীতে ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী আটক আব্দুর রহমান এর পক্ষে বোয়ালমারী উপজেলা ছাত্রলীগের মাস্ক ও শুকনো খাবার বিতরন বোয়ালমারীতে উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষ রোপন সালথায় জ‌মি দখল ক‌রে অ‌বৈধ ড্রেজার দি‌য়ে বালু উত্তোল‌নের অ‌ভি‌যোগ বোয়ালমারীতে শেখ কামালের জন্মবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন বোয়ালমারীতে ১০ বছর শিকলবন্দি সেই শাহিনের পাশে প্রশাসন
add

দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ থাকার পর রিটেন্ডার হচ্ছে সাতৈর রেলগেটে নির্মাণাধীন ওভারপাসের

  • বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১ বার পড়া হয়েছে

বোয়ালমারী (প্রতিনিধি):

ফরিদপুরের মাঝকান্দি-ভাটিয়াপাড়া ৪৪ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়কের সাতৈর রেলগেটে নির্মাণাধীন ওভারপাস প্রকল্প এখন এলাকাবাসির জন্য চরম দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। প্রায় চার বছরের বেশি এ প্রকল্পের কাজ শেষ করা হয়নি। সড়কটি চালু রাখার জন্য পাশ দিয়ে বাইপাস সড়কেরটিরও চলাচলের অনুউপোগী হয়ে পড়েছে । খানাখন্দে ভরে গেছে বাইপাস রাস্তাটি। খানাখন্দের কারণে প্রতিনিয়তই যানবাহন আটকে পড়ছে। যে কারণে মাঝে মধ্যে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ফরিদপুর, ঢাকার সাথে বোয়ালমারী, আলফাডাঙ্গার সারসরি সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা।

চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে এলাকার যাত্রী সাধারন মানুষ, স্থানীয় বাসিন্দা ও পরিবহন মালিক শ্রমিকদের। ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলা মাঝকান্দী থেকে শুরু হয়ে বোয়ালমারী কাশিয়ানীর মধ্য দিয়ে গোপালগঞ্জের ভাটিয়াপাড়া ঢাকা খুলনা মহসড়কের সাথে মিলেছে এ আঞ্চলিক মহাসড়কটি। কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া রেল লাইন বয়ে গেছে বোয়ালমাী উপজেলার উপর দিয়ে। রাজবাড়ি-ভাটিয়াপাড়া লোকাল ট্রেনের পাশাপাশি রাজশাহী-গোবরা (টুঙ্গীপাড়া) মেইল ট্রেনও চালু রয়েছে।

বোয়ালমারী উপজেলার ব্যস্ততম সাতৈর রেলগেট। তাই প্রয়োজন পড়ে একটি ওভারপাস নির্মাণের। প্রয়োজন মেটাতেই আঞ্চলিক মহাসড়কের নির্মাণ প্রকল্পের সাথেই পাশ হয় ওভারপাস নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। কিন্তু এ প্রকল্পের কাজের ভবিষ্যৎ এখন অন্ধকার। ৩৭ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪৩৪.৫ মিটার (প্রায় অর্ধ কিলোমিটার) ওভারপাসের কাজ ২০১৭ সালের ৭ আগস্ট শুরু হয়েও দৃশ্যমান অগ্রগতির আগেই হঠাৎ স্থগিত হয়ে যায় নির্মাণ কাজ। গ্রীষ্মকালে ধূলিদূষণ আর বর্ষায় পানি-কাদার ভয়ানক পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার কারণে পথচারী ও জনসাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। মুখ থুবড়ে পড়ে থাকা এ প্রকল্প নিয়ে ভুক্তভোগীদের একটাই প্রশ্ন, কবে শেষ হবে রেলওয়ে ওভারপাসে নির্মাণ কাজ ? কবে মানুষ মুক্তি পাবে ভোগান্তি থেকে ? শোনা গেছে সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান এ প্রকল্পের কাজটি করছিল কিন্তু তাঁর মৃত্যুর পর কাজ বন্ধ হয়ে যায়।

ফরিদপুর সড়ক ও জনপথ (সওজ) কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ফরিদপুর জেলার সহস্রাইল-আলফাডাঙ্গা সংযোগ সড়কের উন্নয়নসহ মাঝকান্দী-ভাটিয়াপাড়া আঞ্চলিক মহাসড়কের কাজ ২০১৬ সালে একনেকে অনুমোদন হয়। বরাদ্দ ছিল ২৩৯.৬৪ কোটি টাকা। প্রকল্পের শুরুর তারিখ ছিল ১ এপ্রিল ২০১৬। প্রকল্পের কাজ শেষ করার মেয়াদ ছিল ২০১৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর। আঞ্চলিক মহাসড়কের কাজ শেষ হয় ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর মাসের আগে। আঞ্চলিক মহাসড়কের মোট দৈর্ঘ্য ৪৪ কিলোমিটার। তার মধ্যে ফরিদপুর অংশে হচ্ছে ৩৫.৫৯ কিলোমিটার। সাতৈর রেলওয়ে ওভারপাসের যায়গাটি ১৫ কিলোমিটারের স্থানে। এই প্রকল্পেই ওভারপাসটি নির্মাণ হওয়ার কথা। কিন্তু এক তৃতীয়াংশের কাজ থমকে আছে ওভারপাসটির নির্মাণের কাজ। এদিকে ফরিদপুর সওজে এমএম বিল্ডার্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড বা মেসার্স এমএস প্রকৌশলী নির্মাণ বিশারদের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য ফোন নম্বর পাওয়া যায়নি।

নির্মাণ কাজের এলাকায়ও খোঁজ করে তাদের কোনো কর্মী বা প্রতিনিধির সন্ধ্যান মেলেনি।এই বাইপাস সড়ক দিয়েই প্রতিনিয়ত হাজার হাজার ছোট-বড় যানবাহন চলাচল করে। বর্ষা মৌসুমে এই বাইপাসের প্রায় আধা কিলোমিটার সড়কে বৃষ্টির পানিতে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। আর এসব খানাখন্দে প্রায় সময় ভারী যানবাহন আটকে যায়। গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকটি ভারী যানবাহন উল্টে পড়ার ঘটনাও ঘটেছে। রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণকল্পে বিকল্প হিসেবে অস্থায়ীভাবে তৈরি করা রাস্তাটুকু সংস্কার না করলে যে কোনো মুহূর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। অস্থায়ী বাইপাস সড়কটি সংস্কার করে চলাচলের উপযোগী করার জোর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় ও পথচারীরা। গত ২-৩ দিনে বাইপাস সড়কে ট্রাক ফেঁসে যায়। কয়েকদিন আগে আলু বোঝাই করা ২টি ট্রাক সড়কের উপর উল্টে গিয়ে সড়কে চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

যানবাহন উল্টে যাওয়ার ঘটনায় ঘন্টার পর ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফরিদপুরে চাকুরী করা কয়েকজন জানান, বোয়ালমারী থেকে ফরিদপুর যেতে প্রায় প্রতিদিন এখানে আটকে যেতে হয়। সময় মতো অফিসে পৌঁছানো যায় না। দ্রুত এর সমাধান চাই। বোয়ালমারী সাব-রেজিস্ট্রি দলিল লেখক মো. হুসাইন মিয়া বলেন, দীর্ঘদিন কাজ না করে এভাবে ফেলে রেখে মানুষ ও যানবাহনের ক্ষতি হচ্ছে। এ ব্যাপারে ফরিদপুর জেলা যুবলীগের সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের  আহবায়ক শরীফ মো. সেলিমুজ্জামান লিটু বলেন, এত সুন্দর রাস্তা সামান্য এইটুকুর জন্য মানুষের দুর্ভোগের সিমা নেই। মানুষের কষ্ট কাকে বলে চোখে না দেখলে বুজা যাবে না। দ্রুত বাইপাস সড়কটি মেরামতের দাবি জানান তিনি।এ ব্যাপারে ফরিদপুর সড়ক ও জনপথের (সওজ) উপ-সহকারী প্রকৌশলী সুমন কর্মকার বলেন, সাতৈর রেলওয়ে ওভারপাসের দৈর্ঘ্য ৪৩৪.৫ মিটার (প্রায় অর্ধকিলোমিটার)। যার ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৭ কোটি ৬২ লাখ টাকা। কাজটির মূল ঠিকাদার হচ্ছে এমএম বিল্ডার্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড। কিন্তু কাজটি জয়েন্ট বেঞ্চারে (জেবি) নিয়ে নেয় মেসার্স এমএস প্রকৌশলী নির্মাণ বিশারদ নামে অন্য আরেকটি প্রতিষ্ঠান। যার স্বত্বাধিকারী সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মরহুম শেখ মো. আব্দুল্লাহ। তিনি আরও জানান, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান গত ২০১৭ সালের ৭ আগস্ট কাজ শুরু করেন। এ পর্যন্ত ৩৫ শতাংশ কাজ হয়েছে। তবে বারবার তাদের কাজ করার কথা বললেও নানা অজুহাতে কাজটি ফেলে রেখেছে। যে কাজ আছে তা করতেও কমপক্ষে এক বছর সময় লাগবে।

ফরিদপুর সড়ক ও জনপথের (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইমরান ফারহান সুমেল বলেন, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে বারবার তাগিদ দেয়া হয়েছে। লিখিতভাবে চিঠিও পাঠানো হয়েছে। তারা কাজ করছি বলে দীর্ঘদিন কাজ না করে ফেলে রেখেছে। সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করে তাদের সাথে চুক্তি বাতিল করা হবে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে রিটেন্ডার করে কাজ শুরু করা হবে।

add

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
add
© 71bangla24 2020 All rights reserved. কারিগরি সহায়তা: WhatHppen
Theme Customized By BreakingNews