1. admin@71bangla24.com : admin :
বুধবার, ১৬ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২৯ অপরাহ্ন
বিজ্ঞাপন:
সারাদেশে জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নেওয়া হবে।আগ্রহীরা যোগাযোগ করবেন ০১৭৭৮৬২০৬৯০ অথবা ০১৭১২৯৫৪৮৮৩ আপনার প্রতিষ্ঠানকে সারা বিশ্বে পরিচিত করতে বিজ্ঞাপন দিন।বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন-০১৭৭৮৬২০৬৯০
শিরোনামঃ
বোয়ালমারীতে উপজেলা পরিষদের নতুন ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ ফরিদপুর জেলা পুলিশের শ্রেষ্ঠ এএস আই নির্বাচিত মোবারক হোসাইন সালথায় জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিলেন সাজেদা চৌধুরীর ছে‌লে লাবু চৌধুরী সালথায় কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ বোয়ালমারীতে নসিমন উল্টে ১জন নিহত সালথা মডেল প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন: সভাপতি আবু নাসের, সম্পাদক আজিজুর সালথায় সহিংসতা ও তান্ডব মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন বুড়াইচ ইউনিয়নে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত‍্যাশী চেয়ারম্যান প্রার্থী আহসানউদ্দৌলা রানা’র উঠান বৈঠক বোয়ালমারীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত সালথায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার সালথায় কেক কেটে সাংবাদিক নেতা আছাদুজ্জামানের জন্মদিন পালিত বোয়ালমারীতে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হলেন হাফিজুর রহমান সালথায় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু ফ‌রিদপু‌র-২ আস‌নের উপ‌-নির্বাচ‌নে লাবু চৌধুরী বিজয়ী বোয়ালমারীতে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক নিহত বোয়ালমারীতে জেল হত্যা দিবস পালিত বন্ডপাশা হাজেরা মকবুল কলেজে শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সাথে মতবিনিময় বোয়ালমারী উপজেলা আ’লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক প্রশান্ত সাহা’র মৃত্যুতে আব্দুর রহমান এর শোক
add

বোয়ালমারীতে উপজেলা পরিষদের নতুন ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

  • বুধবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২২
  • ৫ বার পড়া হয়েছে

বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি :

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে উপজেলা পরিষদের নতুন ভবন নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা প্রকৌশলীর যোগসাজশে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজের সিডিউলকে তোয়াক্কা না করে নিয়মবহির্ভূতভাবে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে নির্মাণ কাজ করেছে বলে অভিযোগ। খোদ উপজেলা পরিষদ চত্বরে এমন অনিয়মের ঘটনা ঘটলেও স্থানীয় প্রশাসনের যেন কোনো দায় নেই। আর এর মাধ্যমে নতুন ভবনের স্থায়িত্ব ও মান নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে বোয়ালমারী উপজেলা পরিষদের নতুন প্রশাসনিক ভবন ও হলরুম নির্মাণের জন্য প্রায় ৭ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়। কাজটি পান ফরিদপুরের রাফিয়া কনস্ট্রাকশন লিমিটেড নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কাজ শুরু করার পর ওই কনস্ট্রাকশনের স্বত্বাধিকারী মামলা সংক্রান্ত জটিলতার কারণে কারাগারে যাওয়ায় এক পর্যায়ে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় টেন্ডার হয়। পরবর্তীতে টেন্ডারের সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে সিরাজগঞ্জের খাজা বিল্কিস রাব্বি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ২ কোটি ৯ লাখ টাকায় কাজটি পায়।
সরেজমিন পরিদর্শনকালে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বললে তারা জানান, নির্মাণ কাজ চলাকালীনই উপজেলা পরিষদের হলরুমের বিভিন্ন স্থানের দেয়ালে ফাটল দেখা দেয়। পরে পলেস্তরা করার সময় ফাটল ঢেকে দেয়া হয়।

একটি সূত্র জানায়, সিরাজগঞ্জের খাজা বিল্কিস রাব্বি নামের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি ভবনের বিভিন্ন ধরনের কাজে নিম্নমানের দ্রব্যসামগ্রী ব্যবহার করেছেন। সিঁড়ির রেলিংয়ে এসএসের পরিবর্তে লোহা ব্যবহার করা হয়েছে।

এছাড়া উপজেলা পরিষদের নতুন ভবন এবং নির্মাণাধীন হলরুমে বরাদ্দ (এস্টিমেট) মেতাবেক টাইলস এবং স্যানিটারি মালামাল ব্যবহৃত হয়নি। এস্টিমেটে এ গ্রেডের টাইলস ব্যবহার করার কথা উল্লেখ থাকলেও বিভিন্ন কক্ষের মেঝে ও ওয়াশরুমের দেয়ালে বি গ্রেডের টাইলস ব্যবহার করা হয়েছে। এমনকি ওয়াশ ব্লকের বেসিন, কমোড, প্যান বি গ্রেডের দেয়া হয়েছে। দরজার চৌকাঠসহ পাল্লার ক্ষেত্রেও এস্টিমেট অনুসরণ করা হয়নি। সেগুন কাঠ দিয়ে চৌকাঠসহ দরজার পাল্লা দেয়ার কথা থাকলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরজার পাল্লায় মেহেগনি কাঠ এবং চৌকাঠে কড়ই কাঠ ব্যবহার করেছে। ব্যবহৃত কাঠও নিম্নমানের (অসার) বলে অভিযোগ।

এ ব্যাপারে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী এবং দৈনিক সময়ের প্রত্যাশার সম্পাদক লিটু সিকদার বলেন, উপজেলা পরিষদের সামনেই আমার অফিস। পরিষদের দুটি ভবন নির্মাণেই অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ঠিকাদার নিজের ইচ্ছামতো নির্মাণ কাজ করেছেন। উপজেলা প্রকৌশলীর তদারকি করার কথা থাকলেও তিনি নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছেন।

নির্মাণ কাজে নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহারের অভিযোগ বিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধির সাথে কথা বলার জন্যে ০১৮২৩৩৩৮৬৫১ নম্বরে ফোন দিলে সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার পর তিনি কোন কথা না বলে ফোন কেটে দেন। পরবর্তীতে প্রায় দুই ঘন্টার অধিক সময় পর্যন্ত ফোন বন্ধ থাকায় আর কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে ভবন নির্মাণ সংক্রান্ত তথ্য জানতে সংশ্লিষ্ট উপ-সহকারী প্রকৌশলী লুৎফর রহমানের অফিসে গেলে তিনি কোন তথ্য দিতে অস্বীকৃতি জানান।
এ ব্যাপারে বোয়ালমারী উপজেলা প্রকৌশলী মো. রাশেদুজ্জামান বলেন, ইতোপূর্বে একটা অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত করে দেখেছি, সিডিউল মোতাবেক কাজ হয়েছে।  অনিয়মের সাথে প্রত্যক্ষ সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ বিষয়ে তিনি বলেন, এ বিল্ডিংয়ে আমরাই অফিস করবো। সেহেতু এখানে কাজে ফাঁকি দেয়ার কোন সুযোগ নেই।

স্থানীয় সরকার অধিদপ্তরের জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শাহিদুজ্জামান খান বলেন, বিষয়টি দেখার দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট ইউএনও-র। তারপরেও যেহেতু আপনি জানিয়েছেন আমি বিষয়টি দেখব এবং তদারকি করার জন্য ইউএনওকে বলব।
এ ব্যাপারে বোয়ালমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোশারেফ হোসাইন বলেন, এ ব্যাপারে এর আগে কোন অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নিতে সুবিধা হতো। তারপরও আপনার মাধ্যমে যেহেতু অভিযোগ পেয়েছি অনিয়মের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

add

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
add
© 71bangla24 2020 All rights reserved. কারিগরি সহায়তা: WhatHppen
Theme Customized By BreakingNews